মক্কায় কুরবানি দিয়েছিলাম যেভাবে

মক্কায় কুরবানি দিলাম যেভাবে
(স্মৃতিচারণ)
ডা. সাদেকুল ইসলাম তালুকদার

হজ্জ করেছিলাম ২০০৫ সনের জানুয়ারিতে। সাথে আমার স্ত্রী ফিরোজা আক্তার স্বপ্নাও ছিলো। আমরা ময়মনসিংহ থেকে ৪৫ জনের একটা কাফেলা হজ্জে গিয়েছিলাম। কাফেলার আমীর ছিলেন ময়মনসিংহ মাঘমারার আল কাবা হজ্জ ফাউন্ডেশনের আমীর শাহ মোশাররফ হোসাইন । তিনি প্রতি বছরই প্রায় ৪৫ জনের একটি করে কাফেলা নিয়ে হজ্জে যেতেন। রমজান মাসে বেশ কিছু সাথী নিয়ে তিনি ওমরা করে আসতেন। আমীর হিসাবে তিনি খুব দক্ষ, সৎ ও যোগ্য ছিলেন। হজ্জে যাওয়ার আগে ময়মনসিংহের একটি বাসায় তিনি হজ্জ সম্পাদনের প্রশিক্ষণ করিয়েছিলেন। একটা জিনিস তিনি একটু বেশী শিক্ষা দিয়েছিলেন সেটা হলো হজ্জে গিয়ে খুব ধৈর্যশীল হতে হবে।

Continue reading “মক্কায় কুরবানি দিয়েছিলাম যেভাবে”

বন্ধু মামুন

বন্ধু মামুন
(স্মৃতিচারণ)
ডাঃ সাদেকুল ইসলাম তালুকদার

আব্দুল করিম আল মামুন এইচএসসি পড়ার সময় ১৯৭৭-৭৮ সেসনে আমার সহপাঠী হলেও প্রকৃতপক্ষে আমার এক বছরের সিনিয়র ছিলেন। তিনি গাজীপুরের ভাওয়াল বদরে আলম কলেজে একবছর পড়ে কালিহাতির আলাউদ্দিন সিদ্দিকী কলেজে মাইগ্রেশন নিয়ে এসেছিলেন। ছাত্রাবাসে আমার রুমমেট ছিলেন। সিনিয়র-জুনিয়র হওয়াতে আমি তাকে মামুন ভাই ডাকতাম, তিনি আমাকে সাদেক ভাই ডাকতেন। মামুন ভাই কথা বলার সময় প্রায়ই আটকে যেতেন। ছোট বেলায় কি যেন একটা জ্বর হয়েছিল। সেই থেকে তার কথা আটকে যেতো। যতক্ষণ কথা মুখ দিয়ে বের হতো না ততক্ষণ ডান হাতের তর্জনি আংগুল দিয়ে মাথার ডান পাশে ছুঁইয়ে রাখতেন। যে কোন বিষয়ে তিনি পাণ্ডিত্য দেখাতে চেতেন। যে কেউ কোন বিষয় নিয়ে কথা বললে তিনি এগিয়ে গিয়ে কিছু একটা মন্তব্য করতেন। তার প্রথম বাক্য ছিলো “না না, আমার মনে হয়, এটা ঠিক না।” তারপর বিষয়টি নিয়ে তিনি অনেকক্ষণ কথা বলতেন। কেউ যদি পড়তে পড়তে ক্লান্ত হয়ে বারান্দায় বের হয়ে আরেকজন ক্লান্ত ছাত্রের সাথে কোন বিষয় নিয়ে দুই চার কথা বলতেন, মামুন ভাই পড়া বাদ দিয়ে বারান্দায় চলে যেতেন আলোচনায় অংশ গ্রহণ করতে। বারান্দায় জমসে আলাপ করলে আমার সমস্যা হতো। আমি ছিলাম বইয়ের পোকা। তাই, মাঝে মাঝে আমি মামুন ভাইকে টেনে রুমে নিয়ে আসতাম। আমি ছোট হলেও মামুন ভাই আমাকে মান্য করতেন। জোড় করে রুমে ঢুকালেও মামুন ভাই পড়তেন না। শুয়ে তাকিয়ে থাকতেন সিলিং-এর দিকে। পড়ার ফাঁকে ফাঁকে দুইজন দুই বেডে শুয়ে শুয়ে হাল্কা গল্প করতাম। গল্প করতে করতে আমাদের মধ্যে সমবয়সীর মতো বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। বলতাম Continue reading “বন্ধু মামুন”