রুগীর পথ্য খেয়ে ফেললেন

(ছোট ছোট সংলাপ)
-করিম, অত্র অঞ্চলের সবাই জানে যে করিম ও রহিমের মধ্যে যে বন্ধুত্ব তার আর তুলনা হয় না।
-রহিম, ঠিক কথাই বলছস। তোর অসুস্থতার কথা শুনে আমি আর ঠিক থাকতে পারলাম না। তাই আজ তোকে দেখতে এসে পরলাম।
-করিম, সারাদিন এই অসুস্থ আমাকে কত লোক এসে দেখে গেল। কিন্তু যে পর্যন্ত তুই না আসলি আমি তৃপ্তি পেলাম না। সবাই আমাকে ভাল বাসে। তারা আমার জন্য কত কত ফল মুল পথ্য নিয়ে এসেছে। সবার প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।
-দোস্ত, তুমি ঘুমাও। আমি তোমার মাথা কপাল টিপে দেই। তোমার কপাল গরম। জ্বর অনেক বেশী। একশ দুই/তিন ডিগ্রী হবে।
-করিম, তুই চলে যা। বৃষ্টি বাদলের দিন। অন্ধকার রাত্রি। বেলা ডোবার আগেই চলে যা।
-আমি আজ তোর কাছে থাকব। তোর মাথা শরীর টিপে দেব।
-তুই চলে যা। তোর ভাবী তোর জন্য রান্না করে নাই। তুই তো আমার অন্য কোন পথ্যও আনিস নি যে তাই তোকে খাওয়ায়ে দেব। তুই তো একটু কৃপণ মানুষ।
-রহিম, তুই আমার খাওয়ার চিন্তা করিস না। আমি এতক্ষণ তোর সিতানে বসে তোর জন্য রাখা যত পথ্য ছিল সব খেয়ে ফেলেছি। বড়ই সুস্বাদু ছিল আঙুর, আপেল, বেদেনা, কিসমিস, আতাফল। খেয়ে পেট ভরে গেছে। তোর সাথেই ঘুমাব।

[৯/৩/২০১৮]

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *