চিকিৎসার জন্য ডাক্তার নির্বাচন

চিকিৎসার জন্য ডাক্তার নির্বাচন

আমরা যখন অসুস্থ হয়ে পড়ি তখন চিকিৎসকের স্বরনাপন্ন হতে হয়। কোন্ ডাক্তার দিয়ে চিকিৎসা করাবো এনিয়ে আমরা চিন্তিত হয়ে পড়ি। বন্ধুমহলে বা মুরব্বিদের কাছে পরামর্শ চাই কোন্ ডাক্তারকে দেখাবো। বারো রকম মানুষ বারো রকম পরামর্শ দিয়ে থাকেন। রোগীরা অনেক সময় পরামর্শ পেয়ে বিভ্রান্তিতে পড়ে যায়। কেউ বলেন অমুক ডাক্তার ভালো। কেউ বলেন অমুক ডাক্তার ভালো না। কেউ বলে অমুক ডাক্তার লোভী না। কেউ বলেন অমুক ডাক্তার খুবই লোভী। কেউ বলেন অমুক ডাক্তার কমিশন খান। কেউ বলেন অমুক ডাক্তার কমিশন খান না। কেউ বলেন অমুক ডাক্তার বেশী বেশী ঔষধ লেখেন। কেউ কেউ বলেন অমুক ডাক্তার খুব কম ঔষধ লেখেন। এমন নানা বিভ্রান্তিকর কথাবার্তা শুনতে পাবেন নানা জনের কাছে। সব বাদ দিয়ে আমার কথা শুনুন।

 

এই শরীরটা আপনার। শরীর সুস্থ আছে তো আরামে আছেন, শান্তিতে আছেন। শরীর ভালো নেই তো কষ্টে আছেন। অসুস্থ হলে সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা করতে হবে আরোগ্য দানের জন্য। এবং অবশ্যই ডাক্তার দিয়ে চিকিৎসা করাতে হবে। আপনার ব্যক্তিগত চিকিৎসক থাকতে হবে, আপনি যার উপর পূর্ণ আস্থা রাখেন আপনার শরীরের জন্য। আপনার ডাক্তার দক্ষ ও নীতিবান না হলে আপনার কষ্টও বাড়বে, অর্থেরও অপচয় হবে। ডাক্তার পছন্দের ব্যাপারে ডাক্তারের চেহারাটা দেখার প্রয়োজন নেই। চেহারা দেখে বিয়ের ব্যাপারে। অনেকে বন্তব্য করে “ডাক্তারটার চেহারাটা দেখেই বুঝা যায় কিছুই বুঝে না।” না, চেহারা দেখে বুঝা যায় না কে কেমন ডাক্তার। অনেকে ডাক্তারের কাপড় চোপড় পড়ার স্টাইল দেখেও ডাক্তার পছন্দ করে। না, ডাক্তারের স্টাইল দেখার প্রয়োজন নেই। স্টাইল দেখে ডাক্তার পছন্দ করবেন না। ভালো ডাক্তার স্টাইলিস্ট হতেও পারে নাও হতে পারে। কোন কোন রোগী তার ডাক্তার পুরুষ হবে, না মহিলা হবে তা নিয়ে দ্বিধা করে। ডাক্তার পুরুষ হোক আর মহিলা হোক কোন সমস্যা নেই। আপনার প্রয়োজন ভালো ডাক্তার। কেউ কেউ ডাক্তার কোন্ রাজনৈতিক পার্টি করেন জানতে চান। জানার প্রয়োজন নেই। রোগীর প্রয়োজন ভালো ডাক্তার। কেউ কেউ জানতে চান ডাক্তারের পোস্টিং কোথায় বা পদবী কি। কোন প্রয়োজন নেই। আপনার প্রোয়োজন ভালো ডাক্তার। তবে ভালো ডিগ্রি আছে কি না জানার দরকার আছে। ডাক্তার দুর্বোধ্য বা অপ্রযোজ্য কোন ডিগ্রি লিখে রেখেছেন কি না দেখা উচিৎ। এসব ডাক্তারের কাছে না যাওয়াই ভালো। রোগীর ইনভেস্টিগেশন রিপোর্ট যারা করেন তাদের ব্যাপারেও সতর্ক থাকতে হবে। রিপোর্টকারী অবশ্যই ডাক্তার হতে হবে। এসব রিপোর্ট যেসব ডাক্তার গ্রহন করেন সেসব ডাক্তার বর্জন করতে হবে।

 

একবার এক রোগী ভিন্ন ধর্মের এক ডাক্তারকে দেখালে ডাক্তার তাকে অপারেশন করার পরামর্শ দিলেন। রোগী বেঁকে বসলেন ভিন্ন ধর্মের ডাক্তার দিয়ে অপারেশন করাবেন না। আমি ব্যাখ্যা জানতে চাইলে তিনি বললেন “আমাকে অজ্ঞান করে অপারেশন করবেন। অজ্ঞান করার আগে আমি দোয়া কালাম পড়ে অজ্ঞান হবো যাতে মরে গেলেও ইমানের সাথে মরে যাই। ডাক্তার তো আমাদের ধর্ম করেন না। তিনি অপারেশনের আগে বিসমিল্লাহও বলবেন না। আমি যদি মরে যাই তবে একজন বিধর্মীর হাতে আমার মৃত্যু হবে। শুনতে কেমন লাগে?” আমি বললাম “যার যার ধর্ম সে সে পালন করবে। কাজ কর্মও যার যার ধর্ম মতে করবে। ডাক্তার যদি বিসমিল্লাহ না বলেন তাতে কোন সমস্যা নেই। আপনি তো বলবেন। তার কাজ তিনি করবেন। আপনার কাজ আপনি করবেন। আপনার প্রয়োজন অপারেশন। আপনার অপারেশনের জন্য ঐ বিধর্মী ডাক্তার সবচেয়ে ভালো। নিজের ভালো কে না চায়। সবাই সবচেয়ে ভালোটাই চায়। সামর্থ না থাকলে ভিন্ন কথা। ইঁদুর ধরার জন্য বিড়াল দরকার। বিড়াল কালা না ধলা তা দেখার দরকার নেই। বিড়াল ইঁদুর ধরতে পারে কি না তাই দেখতে হবে।”

 

ডাক্তার নির্বাচনের ক্ষেত্রে ভুয়া ডাক্তার এখন একটা বড় সমস্যা। প্রতারকরা ভুয়া সার্টিফিকেট বানিয়ে ও প্যাডে ভুয়া ডিগ্রি লিখে সুন্দর সুন্দর ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ডাক্তার সেঁজে বসে রোগীদের সাথে প্রতারণা করে। খবর পড়ে জানা গেছে যে, এরা অনেকেই অনেক বছর ব্যাপি প্রতারণা করেছে। কাজেই, এখনো যে ভুয়া ডাক্তার নেই তা বলা যাবে না। সবাই তো আর ধরা পড়ে না। ধরাই যদি পড়তো এত বছর পর কেনো? এসব পড়ে হয়তো আপনারা ভাবছেন ‘ডাক্তারই দেখাবো না।’ ডাক্তার দেখাতে হবে। আসল-নকল চিনে ডাক্তার দেখাতে হবে। চোখ-কান খোলা রাখলেই বুঝতে পারবেন আসল-নকল। মনে রাখবেন “চক চক করিলেই সোনা হয় না।” শুধু ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ফিটফাটই দেখবেন না। শুধু মেশিনগুলোই দেখবেন না। দেখবেন “ম্যান বিহাইন্ড দা মেশিন।” অর্থাৎ মেশিন গুলো কোন ডাক্তার দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে সেটাও দেখবেন।

 

বুঝে শুনে ডাক্তার নির্বাচন করে নিজের শরীরের রোগ নিজের পছন্দের ডাক্তার দিয়ে চিকিৎসা করান। শরীর ভালো থাকবে। টাকাও বেঁচে যাবে।

২১/৮/২০২০ খ্রি.

ময়মনসিংহ

কেমন লাগলো তার উপর ভিত্তি করে নিচের ফাইফ স্টারে ভোট দিন ক্লিক করে

1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (No Ratings Yet)
Loading...

ডা. সাদেকুল ইসলাম তালুকদার রচিত বই-এর অনলাইন শপ লিংক

http://www.daraz.com.bd/shop/talukder-pathology-lab/