হার্ট এটাক কার হবে?

হার্ট এটাক কার হবে?

(স্বাস্থ্য কথা)

ডাঃ সাদেকুল ইসলাম তালুকদার

 

হটাৎ বুকের হ্রিদপিন্ডের রক্তনালীতে রক্ত চলাচল বন্ধ হয়ে গেলে সাধারণত হার্ট এটাক বলা হয়। ডাক্তারগণ এটাকে বলেন মায়োকার্ডিয়াল ইনফারকশন। অনেক রোগীই হার্ট এটাকের অল্প সময়ে মারা যান। অনুরূপভাবে মস্তিস্কে (ব্রেইনে) রক্ত চলাচল বন্ধ হয়ে গেলে বলা হয় স্ট্রোক। কেউ কেউ ভুল করে হার্ট এটাককে বলেন হার্ট স্ট্রোক।

 

হার্ট এটাক ও স্ট্রোক কার হবে তা সৃষ্টিকর্তা ছাড়া কেউ জানে না। তবে বিজ্ঞানীরা গবেষণা করে এই রোগগুলোর ঝুকিপুর্ণ বৈশিষ্ট্য আবিস্কার করেছেন।

 

কিছু কিছু ঝুকি অপরিবর্তনযোগ্য। কিছু কিছু ঝুকি পরিবর্তনযোগ্য।

অপরিবর্তনযোগ্য ঝুকির মধ্যে আছে বেশী বয়স, পুরুষমানুষ ও বংশগত রোগ।

পরিবর্তনযোগ্য ঝুকির মধ্যে আছে ডায়াবেটিস মেলাইটাস, উচ্চ রক্তচাপ, ধুম পান ও হাপারলিপিডিমিয়া (রক্তে তৈলাক্ত পদার্থ বেড়ে যাওয়া)।

উপরের বৈশিষ্ট্যগুলো বেশী ঝুকিপুর্ন।

কম ঝুকিপুর্ন বৈশিষ্ট্যগুলি হলঃ শারীরিক পরিশ্রম কম করা, বেশী বেশী হাহুতাস করা, মুটিয়ে যাওয়া, খাদ্যে শর্করা বেশী খাওয়া, রক্তে ইউরিক এসিড লেভেল বেশী থাকা এবং জন্মনিয়ন্ত্রণ বড়ি খাওয়া।

 

অভ্যাস পরিবর্তন করে ও চিকিৎসার মাধ্যমে আমরা অনেক ঝুকিই কমাতে পারি এবং হার্ট এটাক ও স্ট্রোক থেকে বাচতে পারি।

 

৪/৬/২০১৭ খ্রি.

পড়ে কেমন লাগলো তার উপর ভিত্তি করে নিচের ফাইফ স্টারে ভোট দিন ক্লিক করে

1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (3 votes, average: 4.33 out of 5)
Loading...

ডাঃ সাদেকুল ইসলাম তালুকদার রচিত বই-এর অনলাইন শপ থেকে বই কেনার জন্য ক্লিক করুন

http://www.daraz.com.bd/shop/talukder-pathology-lab/

Leave a Reply

Your email address will not be published.