নাক কাটা

নাক কাটা

(হাস্তর ও গীত)

ডা. সাদেকুল ইসলাম তালুকদার

 

[আমাদের সখিপুরের গ্রাম এলাকায় ছোটবেলা লোক মুখে কিছু গল্প ও গান শুনতাম। সেগুলোকে বলা হতো যথাক্রমে হাস্তর ও গীত। আমি সেসব হাস্তর ও গীত বন্ধুদের সহযোগিতায় সংরক্ষণ করার চেষ্টা করছি আমার মতো করে। হাস্তর ও গীতের ভেতর দিয়ে আগের দিনের গ্রামবাংলার ইতিহাস ও সংস্কৃতি প্রকাশ পাবে বলে আমি মনে করি। এই লেখাটি তারই একটি অংশ]

 

গেন্দুর বিয়ের রাতে নায়রিদের সাথে শুয়ে শুয়ে গেন্দুর ছোট বোন ময়ফল হাস্তর বলছিলো কাক ও চড়ুই পাখির। শুনে গেন্দুর নানীশাশুড়ী বললেন, খুব ভালা অইছে। অহন আরেকটা হুনাও। ময়ফল বললো, তার আগে আম্বাতন একটা গীত হুনাইয়া দেইক। নানী বললেন, হ, আগে একটা গীত হুনাও। আম্বাতন গীত গাইল।

ঘরে গেছিলাম পান খাবার

জায়ে ছক্কল ধরলো ল

জায়ে ছক্কল ধরলো।।

জায়ের জালায় রান্ধন ঘরে গেছিলাম

পিড়পায় ছাইক্কা ধরলো ল

পিড়পায় ছাইক্কা ধরলো।।

পিড়পার জ্বালায় ঘরের পাছে গেছিলাম

চেল্লায় ঠোক্কর মারলো ল

চেল্লায় ঠোক্কর মারলো।।

চেল্লার জ্বালায় পাট ক্ষেতে গেছিলাম

হিয়ালে ছপ্পন ধরলো ল

হিয়ালে ছপ্পন ধরলো।।

হিয়ালের জালায় গাছে উঠলাম

কাউয়ায় গলগল করল ল

কাউয়ায় গলগল করলো।।

 

এই পর্যন্ত গীত গাওয়ার পর ময়ফল বললো, এই ছেড়ি, এবা কইরা গীত গাইলে তর গীত হারা রাইতেও শেষ অবোনা। তুই এহন চুপ কর। আমার হাস্তর হোন।

এক গেরামের এক বেটা বরুই গাছে উঠছাল বরুই পারবার। মাথার উপুর একটা লাল টুকটুকা চিনিখোট বরুই দেইখা যেই ছুইছে অবাই বোটা থিগা বরুই খইয়া পইরা বেটার নাক দিয়া ঢুইকা নাকের আইড়া কোনায় আইটকা গেছে। বেটা হোমানে নাকে বাদা পারতাছাল। কিন্তুক বরুইডা আর বাইরল না। গাছের নিচ দিয়া যাইতাছাল একটা নাপিত। বেটা নাপিতেরে কইল, দাদা, তোমার খুর দিয়া আমার নাকের বরুইডা বাইর কইরা দেওচে একটু। নাপিত খুর দিয়া বরুই বাইর করনের সুম বেটার নাক কাইটা ফালাইল। লাইগা গেলো একটা কেওয়াস। বেটা নাপিতরে কইল, অয় আমার নাক দিবি, নয় তোর খুর দিবি। নাপিত না পাইরা খুর দিয়া গেলোগা। বেটায় খুর নিয়া রাস্তা দিয়া যাইতাছাল। রাস্তায় দেখল একটা কুমার আতের আঙ্গুল দিয়া মাটি তুলতাছে মাটির পাক পাইল্যা বানানোর নিগা। বেটার আতে খুর দেইখ্যা কইল, তোমার আতের খুরডা দেও কিছু মাটি কাইটা তুলি। বেটায় তারে খুর দিলো। মাটি কাটার সুম মট্টশ কইরা খুরডা ভাইঙ্গা গেলোগা। বেটায় কইল, অয় আমার খুর দেও, নইলে তোমার মাটির দোনা দেও। না পাইরা কুমারে দোনা দিয়া দিল। বেটা দোনা নিয়া আইটা যাইতাছাল। দেহে এক বেটা কচুর পাতার মুদে গাই পানাইতাছে। দোনা দেইখা কইল যে তোমার দোনাডা দেও একটু গাই পানাই। বেটায় যেসুম দোনার মইদে গাই পানাইতে নিছে অবাই গাই নাথি দিয়া দোনা ভাইংগা ফালাইছে। অহন বেটায় কয়, অয় আমার দোনা দিবা নয় তোমার গাই বাছুর দিবা। শেষে তারে গাই বাছুর দিয়াই বিদায় করল। বেটাডা গাই বাছুর নিয়া পথ দিয়া যাইতাছাল। দেহে, এক বেটা আল বাইতাছে। জোয়ালের একমুরা একটা গরু জোরছে আরেকমুরা জোরছে বেটার বউরে। নাক কাটা বেটায় কইল, কী মিয়া, গরুর জোয়াল বউয়ের কান্দে জোরছ? আইল্যা বেটা কইল, গরু আমার মাত্র একটা। তোমার গরুডা দেও, আলে জুরি। হের জন্য আমার বউডা নিয়া যাও। নাক কাটা বেটা গরু দিয়া বউ পাইল। পথ দিয়া বউ নিয়া আইটা যাইতাছাল। এক বেটা দুতী পইরা ঢোল বাজাইয়া নাচতে বাচতে আইতাছাল। দেইখা তার ঢোল নিবার খুব ইচ্ছা অইল। কইল, আমার বউডা নিয়া তোমার ঢোলডা দেও। আমি বাজাইতে বাজাইতে যাই। ঢুলি রাজী অইল। ঢোল দিয়া বউ নিয়া গেলো।

নাক কাটা বেটা নাইচা নাইচা ঢোল বাজাইয়া বাজাইয়া গাহান গাইয়া যাইতাছাল এই কইয়া-

নাক দিয়া পাইলাম খুর,

খুর দিয়া পাইলাম দোনা,

দোনা দিয়া পাইলাম গাই,

গাই দিয়া পাইলাম বউ,

বউ দিয়া পাইলাম ঢোল।।

ডুম ডুমা ডুম ডুম,

ডুম, ডুমা, ডুম, ডুম।।

বেটায় চোউক মুইঞ্জা নাচতে নাচতে যাইতাছাল। পথের নগেই আছাল একটা আন্ধা কুয়া। নাচতে নাচতে গিয়া পড়লো হেই কুয়ায়।

২০/১/২০২১ খ্রি.

ময়মনসিংহ

সৌজন্যেঃ সোনা ভানু বুঝি ও সালমা বুবু।

 
Rate on this writing:

1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (No Ratings Yet)

Loading...
Online book shop of Dr. Sadequel Islam Talukder
http://www.daraz.com.bd/shop/talukder-pathology-lab/