আমার প্রথম পাঠ

আমার প্রথম পাঠ

(স্মৃতিচারণ)

মায়ের সাথে নানাবাড়ি গিয়েছিলাম। মা প্রতি বছর শীতকালে ২০-৩০ দিন এবং বর্ষা কালে ২০-৩০ দিন নানাবাড়ি নাইয়োর থাকতেন। নানাবাড়ি কালিহাতির রৌহা গ্রামে। নিচু ভুমি। মাটি দিয়ে অনেক উচু ভিটা নির্মাণ করে অনেকগুলো পরিবার ঘনঘন ঘর নির্মাণ করে থাকতেন। খুব ছোট ছিলাম। একদিন সকাল বেলা ঘরের চিপা দিয়ে বের হয়ে ছোট নানা কাজিম উদ্দিন মাস্টার-এর বাংলা ঘরের সামনে এসে দাড়ালাম। আমার নানা আমির উদ্দিন ছিলেন সবার বড়। আমার জামা গায়  ছিল না। হাফ পেন্ট পরা ছিল। বাংলা ঘরের সামনে দাঁড়িয়ে দেখলাম ঘরের ভিতরে চটের উপর লেটা দিয়ে বসে পোলাপানরা ঝুকে ঝুকে তালে তালে উচ্চস্বরে পড়ছে “আলিফ দুই জবর আন, বা দুই জবর বান, তা দুই জবর তান….। ” নানা রকম সুরে সুরে  পড়া। আমার খুব ভাল লাগছিল। একজন হুজুর লেটা দিয়ে বসে একটা বেত হাতে নিয়ে একজন একজন করে ছাত্রকে ছবক দিয়ে যাচ্ছিলেন। পরে জেনেছি তিনি ক্বারি রহিম উদ্দিন। গ্রামের লোকজন বলতেন অহুমুদ্দিন কারী। অনেকক্ষণ আমি উপভোগ করলাম। এতক্ষণ মা তার অমুল্যধন পোলাকে খুজে না পেয়ে ঘুরতে ঘুরতে এসে এখানে এসে হাজির হলেন । আমাকে নেয়ার জন্য হাতে ধরে টান দিলেন। আমি না ফেরার  জন্য মোর্চামুর্চি করলাম। কারী সাব বললেন “কি হয়েছে?” মা বললেন “কারী সাব, অরে আপনি পড়ান।” কারী সাব আমাকে ভিতরে নিয়ে বসালেন। এক ছাত্রের কাছ থেকে কায়দা নিয়ে ছবক দিলেন “পড়, আলিফ।” আমি আশে পাশে তাকাই। সবাই আমার দিকে তাকিয়ে আছে। সবার গায়ে জামা আছে। আমি খালি গায়। লজ্জা লাগছিল। এক সময় পড়লাম “আলিফ।” Continue reading “আমার প্রথম পাঠ”

আমার প্রথম হাট দেখা

আমার প্রথম হাট দেখা

(স্মৃতিচারণ)

আমাদের বাড়ীর কাছে হাট ছিল না। আমাদের এলাকায় হাট ও বাজারের মধ্যে পার্থক্য ছিল। হাটে সপ্তাহে নির্দিষ্ট একটি বা দুইটি বারে কেনা-বেচার উদ্দেশ্যে অনেক মানুষ একটি নির্দিষ্ট স্থানে জমা হত। সাধারণত দুপুরের পর হাট বেশী জমত। হাট বসার স্থানে অথবা অন্য কোন নির্দিষ্ট স্থানে সকাল নয়টা দশটার দিকে প্রতিদিন কিংবা নির্দিষ্ট দিন অল্প কয়েকটি জিনিস, বিশেষ করে গাভীর দুধ বিক্রি হত। সেটাকে বলা হত বাজার। আর ঐ সময়টাকে বলা হত বাজার বেলা। যেমন বলা হত “সে বাজার বেলা এসেছিল।” মানে সে সকাল নয়টা-দশটায় এসেছিল। আমি যে সময়টার কথা বলছি সেটা ষাটের দশকের দিকে। Continue reading “আমার প্রথম হাট দেখা”

ওয়া বক ও অজগরের ভয়

ওয়া বক অজগরের ভয়

(স্মৃতিচারণ)

ডা. সাদেকুল ইসলাম তালুকদার

ছোট বেলায় যখন আমাদের ঘুম আসত না তখন ভয় ভিতিকর গল্প বলে মা আমাদেরকে চুপ করিয়ে ফেলতেন। শীতের রাতে লেপের নিচেও যেতে চাইতাম না। হঠাৎ বাতি নিভিয়ে দিয়ে মা বলতেন “এই ওয়া বক আইল।” ওয়া বক নামে একটা কাল্পনিক আজব বক ছিল। বাড়ির পাশে ছেচড়া গাছে এক ঝাক মদন টাক পাখি থাকত।  আমরা বলতাম হারস পাখি (শারস পাখি) । আমার কল্পনায় এর চেয়েও বড় বিভৎস এক ধরনের লম্বা ঠোট ওয়ালা পাখী হতে পারে ওয়া বক। মনে হত কারের (সিলিং)  উপর বসে আছে ওয়া বক। বাতি নিভালেই মাথা গুজে দিতাম লেপ কাঁথার ভিতর। মনে হত মুখ বের করলেই ঠুক্কর দিয়ে আমার চোখ নিয়ে যাবে ওয়া বকে। রাতে ঘরে ঢুকতে না চাইলে আকবর ভাই বলতেন “এই ওয়া বক আইল।” আমি লাফ দিয়ে ঘরে ঢুকে পড়তাম। মনে হতো এই বুজি ওয়া বক আমার হাফ পেন্টে ঠুক্কর দিয়ে পিছন দিকে টান মারল। আমি এখনো মাথা ঢেকে ঘুমাই। অভ্যাস হয়ে গেছে ছোটবেলা থেকে।

Continue reading “ওয়া বক ও অজগরের ভয়”

আমার ছোটবেলার নানাবাড়ি

(স্মৃতির পাতা থেকে)
আমার নানাবাড়ি টাংগাইল জেলার, কালিহাতি উপজেলার রৌহা গ্রামে। কালিহাতি থেকে ৪/৫ কিলোমিটার পুর্বে বংশী নদীর Continue reading “আমার ছোটবেলার নানাবাড়ি”

Ultrasonography Report Writing Software (URM)

– URM is a database desktop software program for Windows operating system.
– It is used for making USG report.

Features:
– Manage database report.
– Make report with a few click.
– Save database in MS Access.
– Easy installation.
– No need of expert.